একটা সুন্দর দিন কীভাবে কাটালাম আমি?

কাল রাত আমি লাস্ট ছয় মাসের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত সাড়ে ১০ টায় ঘুমিয়েছি। সকাল হলেই শুক্রবার এইটা মাথায় রেখে। এলার্ম দিয়ে ঘুমিয়েছিলাম ফজরের আযানের সময়। আযানের মিনিট পাঁচেক আগে ঘুম ভাঙে, তাকাতে কষ্ট হচ্ছিলো। চোখটাকে ইজি করার জন্য, কিছুক্ষণ শুয়ে থেকে ফোনটা নিলাম হাতে।

ফেসবুকে গেলাম, একটা পোস্ট দিলাম। নটিফিক্যাশন গুলো চেক করলাম, কয়েকটা মেসেজের রিপ্লে ও দিলাম। প্রায় ১৫ মিনিট কাটালাম ফেসবুকে। এক ভাইয়ের কাছ থেকে জামাতের সময় জেনে নিয়েছিলাম, যেহেতু বাসা থেকে বের হয়ে নামাজ পড়া সম্ভব না তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম জামাতের সময় একা একা নামাজ পড়ে নিব।
ফেসবুক থেকে বের হয়ে, বাথরুমে ঢুকে ফ্রেশ হয়ে কাপড় চেঞ্জ করে, একেবারে অযু করে বেরুলাম।
নামাজ আদায় করার পরে আধা ঘন্টা ইংরেজি কোরআন পড়লাম। পড়ার পরে, আধা ঘন্টা আরবি তেলাওয়াত শুনলাম। এর পরে আবার ঘন্টাখানেক ঘুমালাম। 

English Quran
English Quran


ঘুম থেকে উঠে দাত-ব্রাশ করে শুধু এক কাপ চা আর দুই পিস ব্রেড খেয়ে কাজ করতে বসলাম ৮.৩০ এর দিকে।
১০ টা পর্যন্ত একটা ভিডিও বানালাম কোম্পানির সার্ভিস প্রমোশনের জন্য। এর পরে ডিম মেলার আউলা-ঝাউলা নিউজ শুনে ১০ মিনিট ওইদিকে হেটে আসলাম, যেহেতু বাসার একদম কাছেই। মানুষের পরিমাণ দেখে বেশী কাছে যাওয়ার সাহস করি নি।
ওখান থেকে এসে হাতমুখ ধুয়ে আবার ল্যাপটপ নিয়ে বসলাম, এর পরে ১২.৩০ এ উঠে গোসল করে চলে গেলাম জুম্মা পড়তে। ততোক্ষণে বেশ ক্ষিদা লেগে গিয়েছে, কারন আমি সব সময় সকালে ভারী খাবার খেয়ে অভ্যস্ত। কিন্তু সিদ্ধান্ত নিলাম, জুম্মা পড়ে এসে খাবো। 

jumma mubarak
জুম্মা পড়লাম বেশ দূরে একটা মসজিদে, ইচ্ছে করেই দূরে যাওয়া।
আসার সময় আর হেটে আসার সাহস করতে পারি নি, রিকশা নিয়ে আসলাম বাসায়। এসে কাপড় চেঞ্জ করে হাত-মুখ ধুয়ে খাওয়া দাওয়া করলাম। মনে হচ্ছিলো, অনেক দিন পরে খাবারে তৃপ্তি পাচ্ছি। (আসলে ক্ষিদা ছাড়া খাওয়া এবং ক্ষিদা নিয়ে খাওয়ার মাঝে অনেক পার্থক্য)।


খেয়ে ১০-১৫ মিনিট শুয়ে থাকলাম, এরপরে প্রায় ২ গ্লাস পানি পান করলাম।
তারপরে চলে এলাম ল্যাপটপের সামনে, লিখে ফেললাম এই পোস্ট।


সত্যি বলতে, নামাজ আর কোরআন এক অদ্ভুত ভালো-লাগা তৈরি করেছে আজকের দিনটায়। আমি এত মানসিক প্রশান্তি অনেক দিন ধরে পাই নি।
আল্লাহ্‌ আমাদের সবাইকে কবুল করুন, সবাইকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার তৌফিক দান করুন।
আমীন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *